জমকালোআয়োজনেপর্দানামলোএবিজিবসুন্ধরাবিজয়দিবসগলফটুর্নামেন্টের 


admin প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ১৭, ২০২৩, ৪:৪০ অপরাহ্ন /
জমকালোআয়োজনেপর্দানামলোএবিজিবসুন্ধরাবিজয়দিবসগলফটুর্নামেন্টের 

রাজধানীরকুর্মিটোলা গলফ ক্লাবে জমকালোআয়োজনে এবিজি বসুন্ধরা বিজয় দিবস গলফ টুর্নামেন্টেরপর্দা নামলো। বসুন্ধরা গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় আয়োজিত তিনদিনব্যাপী এই টুর্নামেন্টে বিজয়ীহয়েছেন শেহজাদ আর মজিদ। রানারআপহয়েছেন মেজর গোলাম মওদুদ (অব:), নারী বিভাগে বিজয়ীহয়েছেন ফাতেমা রহমান। 

কুর্মিটোলাগলফ ক্লাবের বেংকুয়েট হলে রবিবার টুর্নামেন্টেরসমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। যেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান এবং কুর্মিটোলা গলফক্লাবের প্রেসিডেন্ট জেনারেল এস এম শফিউদ্দিনআহমেদ। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান, ভাইসচেয়ারম্যান সাফওয়ান সোবহান, পরিচালক ইয়াশা সোবহান, এবিজি বসুন্ধরার পরিচালক মোস্তফা আজাদ মহিউদ্দিন এবংমেজর জেনারেল জহিরুল ইসলাম।  

বসুন্ধরাগ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় আসরটি আয়োজিত হয়েছে। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে গলফ একটি সম্ভাবনাময়খেলা। এই খেলাকে এগিয়েনিতেই পাশে দাঁড়িয়েছে দেশেরসর্ববৃহৎ ক্রীড়ামোদী কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপ। ১৩ ডিসেম্বর শুরুহওয়া তিনদিনের এই টুর্নামেন্টের রবিবারআনুষ্ঠানিকভাবে পর্দা নামলো। শুরুতেই ৫০ জন বীরমুক্তিযোদ্ধাসাবেক সেনাসদস্যকে সম্মাননা দেওয়া হয়। বসুন্ধরা গ্রুপেরচেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান তাদেরহাতে উত্তরীয় এবং ক্রেস্ট তুলেদেন। শহীদ মুক্তযোদ্ধাদের প্রতিসম্মান জানাতে পালন করা হয়দুই মিনিট নীরবতা। 

অনুষ্ঠানেবসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান বলেন, ‘এবিজি বসুন্ধরা বিজয় দিবস গলফটুর্নামেন্ট ২০২৩ এর পুরস্কারবিতরণী অনুষ্ঠানে আপনাদের মাঝে উপস্থিত হতেপেরে আমি অত্যন্ত আনন্দিত।প্রথমেই আমি বিনম্রভাবে শ্রদ্ধাজানাতে চাই মুক্তিযুদ্ধের ৩০লাখ শহীদ ও মুক্তিযোদ্ধাদেরপ্রতি, যাদের বীরত্বপূর্ণ ও নিঃস্বার্থ আত্মত্যাগ৫২ বছর আগে আমাদেরএনে দিয়েছিল বহুল আকাঙ্খিত বিজয়।তাদের অদম্য সাহস, শৌর্য এবং জাতির প্রতিভালোবাসা এখনো আমাদের সকলেরহৃদয়ে স্পন্দিত। সেই একই চেতনায়আমরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখমুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছি। ’ ‘একটি জাতি হিসেবে বাংলাদেশঅর্থনৈতিক, সামাজিক ও জাতীয় উন্নয়নেরঅসংখ্য চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে যে সমৃদ্ধিও প্রবৃদ্ধির দিকে অগ্রসর হয়েছে, সেই সাফল্যের গল্প রচনায় প্রতিরক্ষাবাহিনীর রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা,’ যোগ করেন তিনি।  ক্রীড়াক্ষেত্রেদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বসুন্ধরা গ্রুপ সব সময় ক্রীড়াউন্নয়নের পাশে ছিল। আগামীতেওথাকবে এমন প্রত্যয় ব্যাক্তকরেছেন গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান। তিনিবলেন, ‘ক্রীড়াঙ্গনেও আমাদের রয়েছে উল্লেখযোগ্য অর্জন। ক্রিকেট, ফুটবল থেকে শুরু করেগলফ পর্যন্ত, আমাদের ক্রীড়াবিদরা অর্জন ও সাফল্যের একঅনন্য গল্প বুনেছেন এবংবাংলাদেশের পতাকাকে গর্বের সঙ্গে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে  নিয়েযাচ্ছেন যা আমাদের জন্যঅনুপ্রেরণাদায়ী। আমি দৃঢ়ভাবে সকলকেজানাতে চাই যে, জাতিরঅগ্রগতির অংশীদার হিসেবে বসুন্ধরা গ্রুপ দেশের খেলাধুলার পরিধি এবং পরিসরের বৃদ্ধিএবং সম্প্রসারণে সহায়তা করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। বাংলাদেশেরউন্নয়ন অগ্রযাত্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রে  আমাদেরনিরলস প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। ’ 

এবিজিবসুন্ধরা বিজয় দিবস গলফটুর্নামেন্ট অংশ নেয়া সকলকেঅভিনন্দন এবং শুভকামনা জানিয়েছেনআহমেদ আকবর সোবহান। তিনিবলেন, ‘আমি আজ এবিজি  বসুন্ধরাবিজয় দিবস গলফ টুর্নামেন্টএর বিজয়ীদের এবং অংশগ্রহণকারীদের তাদেরসাফল্য এবং কৃতিত্বের জন্যঅভিনন্দন জানাতে চাই এবং সামনেরসময়গুলোতে তাদের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করছি। ’ আগামীতে বাংলাদেশ একটি সমৃদ্ধ রাষ্ট্রেপরিণত হবে বলে আশাবাদব্যক্ত করেন বসুন্ধরা গ্রুপেরচেয়ারম্যান। তিনি বলেন, ‘পরমকরুণাময় সর্বশক্তিমান আল্লাহ আমাদের জাতিকে ক্রমাগত সাফল্য দ্বারা সমৃদ্ধ করুন এবং ২০৪১সালের মধ্যে একটি উন্নত জাতিএবং ২০৪০ সালের মধ্যেট্রিলিয়ন ডলারের অর্থনীতিতে পরিণত হওয়ার স্বপ্ন পূরণে আমাদের সক্ষম করুন। জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা শিগগিরই বাস্তবায়িত হোক এবং এটিআগামী প্রজন্মের জন্য অনুপ্রেরণা হয়েথাকুক। সকলকে নববর্ষের অগ্রিম শুভেচ্ছা। ’ 

অনুষ্ঠানেসকল বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলেদেওয়া হয়। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীপ্রধান এবং কুর্মিটোলা গলফক্লাবের প্রেসিডেন্ট জেনারেল এস এম শফিউদ্দিনআহমেদ, পৃষ্টপোষক প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান, ভাইসচেয়ারম্যান সাফওয়ান সোবহান মঞ্চে উপস্থিত থেকে সকল বিজয়ীদেরহাতে ট্রফি তুলে দেন। একইসঙ্গেপ্রধান অতিথি সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিনআহমেদ বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান এবংভাইস চেয়ারম্যান সাফওয়ান সোবহানের হাতে সম্মাননা স্মারকতুলে দেন। এরপর বসুন্ধরাগ্রুপের পক্ষ থেকে প্রধানঅতিথিকে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন আহমেদআকবর সোবহান।   

প্রধানঅতিথির বক্তব্যে বসুন্ধরা গ্রুপকে ধন্যবাদ জানিয়ে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিনআহমেদ বলেন, ‘গলফ একটি ব্যয়বহুলখেলা। এখানে পৃষ্ঠপোষকদের ভূমিকা অনেক। বসুন্ধরা গ্রুপকে