বিএফডিসিতে পরী উড়ে এলেন নিজের আপন আঙিনা

0
0

বাংলারজয় বিনোদন ডেস্ক:

প্রায় একমাস কারাভোগের পর গত ১ সেপ্টেম্বর জামিনে মুক্তি পান ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা পরীমণি। এরপর নিজের অভিনীত ‘মুখোশ’ সিনেমার ডাবিংয়ে অংশ নিয়ে কাজে ফেরেন তিনি। সবশেষ গিয়াসউদ্দিন সেলিমের ‘গুনিন’-এ যুক্ত হয়ে জানান দেন আগের চেয়ে আরও শক্তিশালী হয়ে বড় পর্দায় ফেরার।

সব ঝড় সামলে নতুন করে শুটিংয়ে ফেরার আগে পরী উড়ে এলেন নিজের আপন আঙিনা বিএফডিসিতে। ২৪ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) সন্ধ্যায় এই নায়িকার আগমনে দেশীয় চলচ্চিত্রাঙ্গনটি যেন মুখর হয়ে ওঠে। পরীমণি নিজেও ছিলেন বেশ উচ্ছ্বসিত। সবশেষ গত কোরবানির ঈদের দিন এফডিসির খুব কাছাকাছি এসেছিলেন তিনি। এবার ভেতরে প্রবেশ করলেন। দিলেন নিজেকে নতুন করে ফিরে পাওয়ার বার্তা।

মূলত নিজের নতুন সিনেমা ‘প্রীতিলতা’র সংবাদ সম্মেলনে হাজির হতেই এদিন বিএফডিসিতে  আসেন পরী। মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে কারামুক্তির পর এবারই প্রথম গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন তিনি। ফলে তাকে ঘিরে গণমাধ্যমের আগ্রটাও ছিল চোখে পড়ার মতো।

তবে সংবাদ সম্মেলনে ‘প্রীতিলতা’র বাইরে আর কোনো কথাই বলেননি পরমণি। তিনি বলেন, ‘দুই বছর ধরে ছবিটি নিয়ে আমি প্রস্তুতি নিয়েছি। এটি একটি ঐতিহাসিক চরিত্র। এই চরিত্র ধারণ করা দুই দিনের ব্যাপার না। দীর্ঘ দুই বছর ধরে টিমের সঙ্গে কাজ করে চরিত্রটি ধারণ করছি।’

চরিত্রটির আরও গভীর ঢোকার জন্য জেলজীবন থেকে তিনি অনুপ্রাণিত হয়েছেন কিনা? এমন প্রশ্নের উত্তরে নায়িকার জবাব, ‘আগেই বলেছি প্রীতিলতাকে ধারণ করছি দুই মাস ধরে নয়, দুই বছর ধরে। কতটা ধারণ করতে পেরেছি, সেটার জবাব দেবো সিনেমার পর্দায়। এখানে নয়।’

সিনেমাটি নিয়ে ‘স্বপ্নজাল’ খ্যাত এই তারকা আরও বলেন, ‘অনেক অনুভূতি আছে, প্রকাশ করা যায় না। প্রীতিলতা আমার কাছে সে রকম একটা অনুভূতি, যেটা আমি হুট করে প্রকাশ করতে পারব না। আমরা চাই, আমরা কী করছি, সেটা সবাই পর্দায় দেখুক। দুই বছর ধরে আমি প্রীতিলতাকে ধারণ করার চেষ্টা করেছি। শুটিংয়ে যাওয়ার পর দেখলাম, আমার চরিত্রটির নাম অলিভিয়া।’

এই সিনেমায় শহীদ প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার ছাড়াও অলিভিয়া নামের এক চিত্রনায়িকার চরিত্রেও দেখা যাবে পরীমণিকে। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন এর নির্মাতা রাশিদ পলাশ, নাট্যকার গোলাম রাব্বানী, অভিনেত্রী শম্পা রেজা প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here