বসবাসযোগ্য শহর হিসেবে বিশ্ব সূচকে ঢাকার উন্নতি

0
3

বাংলারজয় প্রতিবেদক :

বসবাসযোগ্য শহর হিসেবে ধীরগতিতে হলেও উন্নতি হচ্ছে বাংলাদেশের রাজধানী শহর ঢাকার। বিশ্বের ১৪০টি শহরের মধ্যে চলতি বছর এর অবস্থান ১৩৭তম। এর আগে ২০১৯ সালে এই সূচকে ঢাকার অবস্থান ছিল ১৩৮তম এবং তার আগের বছর ২০১৮ সালে ঢাকা অবস্থান করছিল ১৩৯তম স্থানে। বসবাসযোগ্যতা ও নাগরিক সুবিধাগত দিক থেকে বিশ্বের প্রধান শহরগুলোর অবস্থান বিষয়ক জরিপকারী প্রতিষ্ঠান ইকোনমিস্ট ইনটেলিজেন্স ইউনিট (ইআইইউ) তাদের সাম্প্রতিক প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

স্থিতিশীলতা, স্বাস্থ্যসেবা, সংস্কৃতি ও পরিবেশ, শিক্ষা এবং অবকাঠামো এই ৫টি ক্যাটেগরির ওপর ভিত্তি করে প্রতিবছর বিশ্বের ১৪০টি প্রধান শহরের ওপর জরিপ চালিয়ে থাকে ইআইইউ। গত বছর করোনা মহামারি ও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে লকডাউন জারি থাকায় জরিপের পূর্ণাঙ্গ তথ্য সংগ্রহ করতে পারেনি  ইআইইউ। যে কারণে ২০২০ সালে প্রতিবেদনও প্রকাশ করা হয়নি।

বিভিন্ন দেশে চলা বৈশ্বিক প্রকল্প, শিক্ষা ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান এবং সরকারি সংস্থাগুলোর কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করে সংস্থাটি। সেই অনুযায়ী, চলতি বছর এই ৫ ক্যাটেগরির মধ্যে স্থিতিশীলতায় ৫৫ পয়েন্ট, স্বাস্থ্যসেবায় ১৬ দশমিক ৭ পয়েন্ট, সংস্কৃতি ও পরিবেশগত অবস্থায় ৩০ দশমিক ৮ পয়েন্ট, শিক্ষা ক্যাটেগরিতে ৩৩ দশমিক ৩ পয়েন্ট ও অবকাঠামো ক্যাটেগরিতে ২৬ দশমিক ৮ পয়েন্ট পেয়েছে ঢাকা। ২০১৯ সালে ৫ ক্যাটেগরির মধ্যে স্থিতিশীলতায় ঢাকার প্রাপ্ত পয়েন্ট ৫৫, স্বাস্থ্যসেবায় ২৯ দশমিক ২, সংস্কৃতি ও পরিবেশে ৪০ দশমিক ৫, শিক্ষায় ৪১ দশমিক ৭ এবং অবকাঠামোতে ২৬ দশমিক ৮।

ইআইইউর চলতি বছরের সূচকে ঢাকার পাশে অবস্থানকারী উপমহাদেশের একমাত্র শহরটির নাম করাচি। চলতি বছর পাকিস্তানের সাবেক রাজধানী ও প্রধান এই শহর ১৩৪তম অবস্থানে আছে। এই তালিকার তলানিতে বা ১৪০তম শহরটি হলো যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ সিরিয়ার রাজধানী দামেস্ক। ২০২১ সালের সূচকে বিশ্বের বসবাসযোগ্য শহরগুলোর মধ্যে শীর্ষে আছে নিউজিল্যান্ডের অন্যতম প্রধান শহর অকল্যান্ড। দ্বিতীয় স্থানে আছে যৌথভাবে জাপানের ওসাকা ও অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেড। তৃতীয় অবস্থানে আছে অস্ট্রেলিয়ার সিডনি ও মেলবোর্ন শহর। চতুর্থ অবস্থানে আছে নিউজিল্যান্ডের রাজধানী ওয়েলিংটন।

২০১৮-১৯ সালে বিশ্বের বসবাসযোগ্য শহরের শীর্ষে ছিল অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনা। তবে এবারের সূচকে শীর্ষ দশের মধ্যেও নেই এই শহরটি। প্রতিবেদনে ইআইইউ-এর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘করোনা মহামারি বৈশ্বিক বসবাস পরিস্থিতিকে প্রায় উল্টাপাল্টে দিয়েছে। আমাদের পর্যবেক্ষণ বলছে, মহামারি পূর্বের সময়ের তুলনায় বর্তমান পরিস্থিতিতে বিশ্বের প্রতিটি শহরের বসবাসযোগ্যতার মান কমেছে এবং এখনও কমছে। বিশেষ করে, ইউরোপের শহরগুলোর ক্ষেত্রে এই ব্যাপারটি প্রকট হয়ে উঠেছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here